২৪ এপ্রিল উড়বে বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইট

প্রথম বারের মতো বাংলাদেশের কৃত্রিম উপগ্রহ ‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১’ আগামী ২৪ এপ্রিল মহাকাশে উৎক্ষেপণ করা হতে পারে।গত মঙ্গলবার স্যাটেলাইট নির্মাণে দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান ফ্রান্সের থ্যালেস অ্যালেনিয়া স্পেসের এক টুইটে এমনটাই জানিয়েছে স্যাটেলাইট ও প্রযুক্তিবিষয়ক সংবাদমাধ্যম আমেরিকা স্পেস।

 

সেই টুইট বার্তায় আরো জানিয়েছে, বুধবার (২৮ মার্চ) কানে তাদের প্ল্যান্ট ছাড়বে স্যাটেলাইটটি। পরে সেটি বহনকারী কার্গো বিমান অ্যানতোনোভ নাইস বিমানবন্দর থেকে ২৯ মার্চ স্থানীয় সময় সকাল ৬টা থেকে ৮টার মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে যাত্রা করবে। একইদিন বোস্টনে যাত্রাবিরতির পর ৩০ মার্চ ফ্লোরিডার কেপ কার্নিভালে পৌঁছাবে ‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১’।

এটা কে, কেপ কার্নিভালেই স্পেসএক্সের লঞ্চ ফ্যাসিলিটিতে লঞ্চ ভেহিকল ফ্যালকন ৯-র ইন্টিগ্রেশনসহ প্রয়োজনীয় পরীক্ষা শুরু হবে। দীর্ঘ পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর এটি মহাকাশের উদ্দেশ্যে উৎক্ষেপণ করা হবে।

আমেরিকা স্পেস জানিয়েছে, উৎপাদন ও লঞ্চার মেনিফেস্ট বিলম্বের কারণে আগামী ২৪ এপ্রিল বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপণের সম্ভাব্য তারিখের ব্যাপারে নিশ্চিত করেছে স্পেসএক্স।

‘ফ্যালকন-৯’ রকেটে করেই বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ মহাকাশে পাঠানো হবে বলে জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা স্পেসএক্সের। এর মাধ্যমে বিশ্বের ৫৭তম স্যাটেলাইট ক্ষমতাধর দেশের তালিকায় নাম লেখাবে বাংলাদেশ।
এর আগে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপণের জন্য রাশিয়ার উপগ্রহ কোম্পানি ইন্টারস্পুটনিকের কাছ থেকে অরবিটাল স্লট কেনে বাংলাদেশ। মহাকাশের ১১৯ দশমিক ১ পূর্ব দ্রাঘিমায় প্রায় ২১৯ কোটি টাকায় ১৫ বছরের জন্য এই কক্ষপথ কেনা হয়েছে।

স্যাটেলাইটটি বাংলাদেশ থেকে নিয়ন্ত্রণ করার জন্য গাজীপুরের জয়দেবপুর ও রাঙ্গামাটির বেতবুনিয়ায় দুটি গ্রাউন্ড স্টেশন নির্মাণের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে। যা নিয়ন্ত্রণে ইউরোপ ও যুক্তরাষ্ট্র থেকে গ্রাউন্ড কন্ট্রোল স্টেশনের যন্ত্রপাতিও আমদানি করেছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *