পানি কম পান করার কারণ এ শরীর এ যে সব সম্যসার সৃষ্টি হয়

পানি পান না করে একদিনও বাচা সম্বব না আর এইজন্যই পানির অপর নাম জীবন। খাবার না খেয়েও যে কোন মানুষ অনেকদিন বাঁচতে পারে কিন্তু পানি ছাড়া বেঁচে থাকা সম্ভব না। প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমান পানি না খেলে আমাদের নানাবিদ সমস্যা শরীর দেখা দিতে পারে। আর এ সব জানার পর ও আমরা পানি কম খাই। কম পানি পানের অভাবে শরীরের নানা অংশ ক্ষতি হবে এটাই স্বাভাবিক।

জেনে নিন কম পানি পানের  ক্ষতি সম্পর্কে

 

১। ত্বক শুকিয়ে যাওয়া


শরীরকে সবদিক দিয়ে ঢেকে রাখেছে ত্বক। পানি না খেলে ত্বক তার স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা হারায়।ফলে ঘাম হয়না,শরির থেকে দুষিত টক্সিন বেরিয়ে যায় না। ফলে গোটা শরীরেই তার প্রভাব পরে।

২। মাংসপেশি কমে যায়-


শরীরচর্চার পর প্রচুর পানি পান করার প্রয়োজন হয়। যেহেতু মাংসপেশিতে অনেক পানি ধরে রাখা যায় তাই পানি না খেলে শরির অনেকটা শুকিয়ে যায়। এটা সসির আর জন্য খুব এ ক্ষতিকর।

৩। ক্লান্তি- 

 

পানি না খেলে ক্লান্তি খুব তাড়াতাড়ি আসে।সেটা এরাতে পরজাপ্ত পরিমাণে পানি পান করতে হবে।

৪। অসময়ে যৌবন হারিয়ে যাওয়া

সারা মুখের চামড়া সময়ের অনেক আগেই কুঁচকে যায়।কারণ পানি না খেলে তার ছাপ পড়ে আপনার মুখেও।যারফলে আপনাকে অনেক বেশি বয়স্ক মনে হয়।

৫। হজমে সমস্যা-


পেটকে ভালভাবে পরিষ্কার রাখার জন্য পর্যাপ্ত পানি পানের বিকল্প নেই। এর অভাবে ওজন বাড়ে। আর দীর্ঘদিন ধরে এ অবস্থা চলতে থাকলে অ্যালার্জি হয় এবং হজমে নানা সমস্যা দেখা দেয়। এর অভাবে ক্ষুধা হ্রাস পাওয়ার পাশাপাশি বমি বমি ভাব এবং পেট ব্যথা হয়ে থাকে। যার জন্য খবর এ অরুচি আসে, এবং খবর খাওয়া সম্বভ হয় না

৬।ভারসাম্যহীনতা-


পর্যাপ্ত পানি পানের অভাবে শরীরের বিভিন্ন অংশে অক্সিজেন সরবরাহে বাঁধা পায়।এর ফলে শরীরের বিষাক্ত বজ্রগুলো বের হতে পারে না ।এছারা হার এবং জয়েন্টগুলোর মধ্যে ভারসাম্যহীনতা দেখা দেয়। পরবর্তীতে কিডনি সমস্যা,রক্তচাপ নিচে নেমে যায় ।

এ সারা আরো অনেক সমস্যা দেখা দেয় শরীর এ , এ জন্য বেশি বেশি পানি পান করা খুব এ জরুরি

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *